গোলক কাকে বলে? ক্ষেত্রফল, মাত্রা কয়টি ?  

 

 

 

যদি আপনি গোলক কাকে বলে,গোলকের ক্ষেত্রফল ,গোলকের আয়তনের সূত্র কি, গোলকের মাত্রা কয়টি,গোলকের বৈশিষ্ট্য এ সম্পর্কে কোনো কিছু না জানেন তো আমি আজকে আপনাদের জানাবো গোলক সম্পর্কে সমস্ত কিছুই।

আজকের এই আর্টিকেলটি রয়েছে গোলক সম্পর্কে সমস্ত কিছু খুব সহজে বোঝার জন্য। 

 

গোলক কাকে বলে

 

 

গোলক বা sphere এই শব্দটি এসেছে গ্রিক অক্ষর ” sphaira ” থেকে যার মানে বল বা globe এর মতো structure ।


সুতরাং গোলক হল ত্রিমাত্রিক দেশে (3 Dimensional) অবস্থিত একটি গোল বলের ন্যায় জ্যামিতিক আকার।

একটি সাধারণ উদাহরণ দিলেই ব্যাপারটা পরিষ্কার হয়ে যাবে ।

আমরা মাটিতে একটি বৃত্ত বা গোল আঁকলাম সেটাকে বলা হবে বৃত্ত যা কিনা দ্বিমাত্রিক দেশে (2D) অবস্থিত, কিন্তু একটি ফুটবলকে যদি ধরা হয় ফুটবলটি হল একটি গোলক। কারণ ত্রিমাত্রিক দেশে এর অবস্থান রয়েছে অর্থাৎ এর দৈর্ঘ্য প্রস্থ উচ্চতা সবই রয়েছে।


গোলক কত প্রকার

গোলক মূলত তিন প্রকার

 

  • ফাঁপা গোলক(Hollow sphere)
  • নিরেট গোলক(Solid sphere)
  •  অর্ধ গোলক (Semi sphere)

 

ফাঁপা গোলক কি

আমরা সবাই ফাঁপা মানে জানি, যে কোন কিছুর ভেতরে হাওয়া বা বাতাস রয়েছে।

সেরকম এখানেও যে গোলকের ভেতরে বাতাস রয়েছে বাইরে শুধু আবরণ আছে তাকে বলা হবে ফাঁপা গোলক।

উদাহরণ – আমাদের ফুটবল, ক্রিকেট বল

 

নিরেট গোলক কি

নিরেট কথাটির মানে হল সলিড, অর্থাৎ ভিতরে একটুও বাতাস থাকবে না।

যে গোলকের ভেতরে কোনো ফাঁকা অংশ না থাকে এবং তার ভিতরে কোন হাওয়াও থাকে না, সেই গোলককে বলা হয় নিরেট গোলক।

উদাহরণ– লোহার বল, মার্বেল ইত্যাদির ভেতরে ফাঁকা জায়গা একদমই থাকেনা।

 

অর্ধ গোলক কি

অর্ধ গোলক কি-semi-sphere-in-bengali

 

একটি লোহার বলকে যদি মাঝে মাঝে কেটে দেওয়া হয় তবে এক একটি টুকরো কে বলা হবে অর্ধ গোলক।

উদাহরণ– গম্বুজ, নারকেলের মালা ইত্যাদি

 

গোলকের মাত্রা বা কয় মাত্রিক ?

আগেই বলা হয়েছে গোলক ত্রিমাত্রিক দেশে অবস্থান করে তাই গোলকের মাত্রা তিন বা ত্রিমাত্রিক (3D)

 

গোলকের কেন্দ্র(center)

গোলকের ভেতরের একদম মাঝখানে যে বিন্দুটি রয়েছে তবে গোলকের কেন্দ্র বলা হয়


গোলকের ব্যাসার্ধ (radious)

গোলকের কেন্দ্র থেকে বাইরের তল অবধি একটি কাল্পনিক রেখা টানলে ওই রেখাটিকে বলা হবে গোলকের ব্যাসার্ধ যা ” r ” দিয়ে লেখা হয়।

 

গোলকের ক্ষেত্রফল

ক্ষেত্রফলের সংজ্ঞা অনুযায়ী, আমরা জানি – দৈর্ঘ্য X প্রস্থ = ক্ষেত্রফল  

 

কিন্তু গোলকের ক্ষেত্রে তো একটি তল রয়েছে অর্থাৎ বাইরের গোলাকার পৃষ্ঠ যা হাত দিয়ে স্পর্শ করা যায়, তাহলে গোলকের ক্ষেত্রফল নির্ণয় করতে বললে আমরা নিশ্চয়ই গোলকের পৃষ্ঠতলের ক্ষেত্রফল নির্ণয় করব

সুতরাং

গোলকের ক্ষেত্রফল বা গোলকের পৃষ্ঠতলের ক্ষেত্রফল কি হবে ?

 

গোলকের ক্ষেত্রফল -sphere-surface-area

 

গোলকের বৈশিষ্ট্য

গোলকের কিছু বৈশিষ্ট্যের মধ্যে অন্যতম হলো -গোলক এমন একটি জ্যামিতিক আকার যার দৈর্ঘ্য প্রস্থ উচ্চতা সমান

 

গোলকের আয়তনের সূত্র

গোলকের আয়তন বলতে কোন জিনিসটি কে বলা হয়?

একটি ফুটবলকে যদি ধরা হয় তবে ফুটবলটির ভিতরে যে ফাঁকা জায়গাটি  রয়েছে সেটি কতটা তার পরিমাপই  হল আয়তন

 

গোলকের আয়তনের সূত্র

গোলকের আয়তনের সূত্র-sphere-volume-formula
গোলকের আয়তন( Volume )= 4/3 πr3 একক3 

এখানে আয়তনের unit হবে সেন্টিমিটার3 , মিটার 3  এইরকম অর্থাৎ ইউনিট3

 
আজকের এই আর্টিকেল আপনি জানলেন, গোলক কাকে বলে, গোলকের মাত্রা কয়টি, গোলকের ক্ষেত্রফল, গোলকের আয়তনের সূত্র,
গোলকের বৈশিষ্ট্য সম্পর্কে। আশা করি লেখার মাধ্যমে আপনি গোলকের ব্যাপারে সমস্ত কিছু বুঝতে পেরেছেন।

 


পড়ুনকোন কাকে বলে

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *