ক্লাউড কম্পিউটিং সেবা গ্রহণ করা হয় কেন ?


ক্লাউড কম্পিউটিং সেবা গ্রহণ করা হয় কেন

আজ আমরা জেনে নেব ক্লাউড কম্পিউটিং সেবা গ্রহণ করা হয় কেন

বর্তমানে ক্লাউড কম্পিউটিং একটি গুরুত্বপূর্ণ ডিজিটাল সেবা যা ভবিষ্যতে টেকনোলজিকে অত্যাধুনিক করে তুলবে। নিচের কারন গুলি দেখেলেই বোঝা যায় আমাদের ক্লাউড কম্পিউটিং সেবা গ্রহণ করা উচিত কেন

  1. Metered Service -আপনি যেটুকু ব্যবহার করবেন তার জন্য আপনাকে টাকা দিতে হবে।তার বাইরে আপনাকে পে করতে হবেনা।
  2. Security -আজকালকার দিনে সিকিউরিটি সত্যি একটা বড় ইস্যু। সেখানে দাঁড়িয়ে আপনি প্রোভাইডার কোম্পানি থেকে সর্বোচ্চ সুরক্ষা পাবেন।
  3. Auto-Upgradableক্লাউড কম্পিউটিংয়ে সফটওয়্যার গুলো আপনাকে আপডেট করার দরকার নেই ,এগুলো অটোমেটিক আপডেট হবে।
  4. Operating cost -ক্লাউড কম্পিউটিংয়ে আপনার খরচ হবে নূন্যতম । আপনি অনেক সফটওয়্যার কম টাকায় ভাড়া পাবেন ,এছাড়া পুরো একটি কম্পিউটার ও ভাড়া করতে পারবেন অনেক কম টাকায় ।
  5. Data Lost – আপনার গুরুত্বপূর্ণ ডাটা গুলো নিজের কম্পিউটার থেকে কোনো কারণে নষ্ট হয়ে গেলেও এখান থেকে ডাটা লস্ট হওয়ার সম্ভবনা প্রায় শুন্য বলা চলে।
  6. Any Time-Any Where – ক্লাউড কম্পিউটিং-র সবচেয়ে বড় advantage হলো যেকোনো সময় যেকোনো জায়গায় ব্যবহার করতে পারবেন। আপনার কাছে ইন্টারনেট ও ডিভাইস থাকলেই হলো ।
  7. Start Up Cost – আপনার  স্টার্টআপেও ক্লাউড কম্পিউটিং বেশি preferable ,কারণ পরে আপনার ব্যবসা লস হয়ে গেলে আপনি যেকোনো মুহূর্তে service বন্ধ করতে পারবেন।

কিন্তু কোম্পনির কাজে প্রচুর কম্পিউটার বা কিছু যদি কিনে নেন ও পরে আপনার ব্যবসা লস হয়ে গেলে তা ফেরানো মুশকিল ।

সবশেষে,

উপরের বিষয়গুলো থেকে আমরা জেনে নিলাম ক্লাউড কম্পিউটিং সেবা গ্রহণ করা হয় কেন

পড়ুন – ক্লাউড কম্পিউটিং কী বা কাকে বলে

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top